1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১১:০৮ অপরাহ্ন

হবিগঞ্জে গরুর খামারে সফল কাউসার মিয়া

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : জুলাই, ৯, ২০২০, ২:৩৮ pm

  • সৈয়দ হাবিবুর রহমান ডিউক, হবিগঞ্জ:: ২০১৬ সালে ১০ টি দুধেল গাভি দিয়ে যাত্রা শুরু করা পারভীন আক্তার ডেইরী ফার্মে এখন আছে ৩৫ টি গরু। হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের শরিফাবাদে গড়ে তুলেছেন মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে মো. কাউসার মিয়া তার সপ্নের ডেইরী ফার্ম। কাউসার মিয়ারা ৪ ভাই, বাবা নেই, তাই তিনি ডুবাই শহরে একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকুরী করেন। তার সকল পরিশ্রমের টাকায় তিনি নিজের ভাইদেরকে সাথে নিয়ে উন্নতজাতের গরুর ফার্ম দিয়ে আজ অনেকটাই সফল।১০টি দুধের গাভি দিয়ে যাত্রা শুরু করে ডেইরি খামারটি। সব খরচ মিলিয়ে ১৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ করে শুরু হওয়া খামারে তখন দিনে ৮০ লিটার দুধ পাওয়া যেত।

    বর্তমানে ওই খামারে ৩৫টি গরু আছে। এর মাঝে তিনটা ষাড়, ৩ টা বকনা বাচ্চা, ১৭ টি বড় গাভী, ৮-১০ টি বাচ্ছা রয়েছে।বর্তমানে দুধ উৎপাদন হচ্ছে ১৮০-২২০ লিটার। দিনপ্রতি গরুদের জন্য প্রায় ৭ হাজার টাকা খরচ হয়। এই খামারটি দেখবাল করে একটা সুন্দর অবস্থানে নিয়ে যেতে সবচেয়ে বেশি পরিশ্রম করেছেন কাউসারের ভাই মো. সাকিম মিয়া।

    শরিফাবাদের মেইন সড়ক থেকে আধামাইল ভিতরে নিজের বাড়িতেই শেড তৈরি করে গড়ে উঠেছে পারভীন আক্তার ডেইরী ফার্মটি। চারিদিকে পাকা পিলার উপরে টিনের শেড ভিতরে গরুর জন্য আলাদা খাবারের ব্যবস্থা গোসলের ব্যবস্থা গরমে গরুদের ফ্যানের ব্যবস্থাসহ সব মিলিয়ে ৪৫ শতক জায়গায় খুব সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে গড়ে তোলা হয় এ খামারটি। সরজমিনে তার ফার্মটি দেখলে মুগ্ধতা ছড়ায়।

    ডেইরি ফার্মের বিভিন্ন বিষয়ে কথা হয় এর মালিক মো. কাউসার মিয়ার সাথে তিনি জানান, করোনাকালে কিছুটা লসে আছেন তিনি। আর তিনি দেশের বাইরে থাকায় গরুর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় তিনি কিছুদিনের জন্য এই খামারটি বিক্রি করে দিতে চান, তবে আবারো তিনি এই খামার ব্যবসা পুরোদ্দমে শুরু করবেন।

    এ বিষয় এ নিজামপুর ইউনিয়নের বিশিষ্ট মুরব্বী সদর উপজেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি জামাল উদ্দিন সরদার বলেন কাউছারের খামার একটি অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। তাঁর দেখাদেখি অনেকে এভাবে স্বাবলম্বী হতে পারে।

    এ বিষয়ে সদর উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা রনজিত কুমার আশ্চার্য বলেন আমি এ খামারটির কথা শুনেছি, বর্তমান করোনাকালে আমরা খামারিদেরকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করে থাকি। আমি উনার খামারটি শীঘ্রই পরিদর্শন করে আসব।

    সিলেটবিবিসি/ ৯ জুলাই/রাকিব

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ