1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:১৭ অপরাহ্ন

সিলেটে ‘বিতর্কিত’ দুই ওসিকে বদলী

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : জুলাই, ১৩, ২০২০, ১২:২০ pm

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজল এবং ওসমানীনগরের ওসি রাশেদ মোবারককে বদলী করা হয়েছে। দুজনকে নিয়েই নিজ নিজ এলাকায় বিভিন্ন ‘বিতর্কিত’ ইস্যু রয়েছে বলে জানা গেছে।

    সিলেটের দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজলকে বদলী করে তার যায়গায় নতুন ওসি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে মোগলাবাজার থানার ওসি আখতার হোসেনকে। শীঘ্রই তিনি নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবেন বলে জানা গেছে।

    ট্যাংকলরী শ্রমিকদের দাবির প্রেক্ষিতে পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে সোমবার (১৩ জুলাই) দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজলকে  মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে (ডিবি) বদলী করে নেওয়া হয়।

    সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) জ্যোতির্ময় সরকার পিপিএম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

    এদিকে, সিলেটের ওসমানীনগরের ওসি রাশেদ মোবারককে সোমবার (১৩ জুলাই) ঢাকার এসবি পুলিশে তাকে বদলী করা হয়েছে। সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লুৎফর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছন।

    ওসি রাশেদ মোবারক নানা বিতর্কিত কাজে ওসমানীনগরে আলোচিত ছিলেন। উপজেলার উমরপুর ইউপি আ.লীগের সভাপতি শহিদ পরিবারের সদস্য দবির মিয়া, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইকবাল আহমদ এবং উমরপুর ইউনিয়নের সালিশি ব্যক্তিত্ব সাবেক ইউপি সদস্য তখলিছ আলী, উপজেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক উমরপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান চেরাগ আলী তার এমন খারাপ আচরণের শিকার হয়েছেন।

    লকডাউন চলাকালীন সময়ে পুলিশ কর্তৃক হয়রানীর দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করার অভিযোগে পরবর্তীতে ওসির কাছে মাফ না চাওয়ায় এক যুবককে  গুজব রটনাকারী সাজিয়ে মামলা দিয়ে কোর্টে চালান করে দেওয়া হয়। লকডাউন ও গণপরিবহন বন্ধ থাকাকালীন সময়ে ঢাকা- সিলেট মহাসড়কের ওসমানীনগরের প্রবেশদ্বার শেরপুর টুলপ্লাজায় চেকপোস্ট বসিয়ে প্রতিটি গাড়িকে নানা কায়দায় চাঁদা আদায় ও সাধারণ চালকদের মারধরের বিষয়টি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীসহ শেরপুর টোলপ্লাজা এলাকার একাধিক বাসিন্দারা।

    অন্যদিকে লকডাউন চলাকালে অবাধে জনসমাগম করার বিষয়ে উপজেলার সচেতন মহলের পক্ষ থেকে ওসিকে বিভিন্ন সময় অবগত করা হলেও ইউএনও’র দোহাই দিয়ে তিনি অবগতকারীদের সাথে অশালীন আচরণ করতেন বলে অনেকেই জানিয়েছেন।

    ওসি রাশিদ মোবারকের এমন কর্মকান্ডে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে ১৮ ই জুন লিখিত আবেদন করেছেন ভুক্তভোগীরা।

    সিলেটবিবিসি/১৩ই জুলাই ২০২০/এমকে-এম

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ