1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

সিলেটে করোনা ‘পজেটিভ-নেগেটিভ’ খেলা!

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : জুন, ২৭, ২০২০, ১১:২২ pm

  • নিজস্ব প্রতিবেদক :: করোনা মহামারীর শুরু থেকেই সিলেট আলোচিত নানা কারণে। একেবারে শুরুর দিক থেকে সরকার কর্তৃক লকডাউন ঘোষণা করা হলেও এসবের তোয়াক্কা না করে সিলেট শহরজুড়ে ছিলো মানুষের আনাগোনা। দ্বীতীয় দফায় সিলেট শহরের লকডাউন নিয়ে ‘নাটক’ আর রেড জোন এলাকা নিয়ে ভূল জোনিংসহ সবকিছু ছাপিয়ে এবার আলোচনায় করোনার নমুণা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ কিংবা নেগেটিভ হওয়া নিয়ে।

    সিলেটের ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে নমুনা জমা দেওয়ার পর ১২ থেকে ১৫ দিন এমনকি মাঝে মধ্যে এরচেয়েও বেশী দিন অতিবাহিত হলেও রিপোর্ট পাননা ভোক্তভোগীরা। কোন কোন ক্ষেত্রে রোগী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার পর জানা যায় তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। করোনার রিপোর্ট প্রদানে এমন গড়িমসির প্রতিবাদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেও ব্যার্থ হয়েছেন সিলেটের সচেতন নাগরিকবৃন্দ।

    গত দুই দিন ধরে সিলেটে করোনার দুটি রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের লন্ডন প্রবাসী আরিফা খাতুনের করোনা পজিটিভ হওয়ার রিপোর্টটি নিয়ে খোদ সন্দেহ প্রকাশ করেছেন তিনি ও তার পরিবার। তাছাড়া সিলেট বিভাগের হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মেডিকেল অফিসার প্রিয়াঙ্কা পাল চৌধুরী্র করোনার রিপোর্ট নিয়ে নমুনা পরীক্ষার ১২ দিন পর প্রথম রিপোর্ট পজিটিভ আসার দ্বিতীয় দিনের ব্যবধানে ২য় নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্টটি নেগেটিভ এসেছে। এ ঘটনা দুটিতে পুরো সিলেটজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

    সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের লন্ডন প্রবাসী আরিফা খাতুনের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবরে বিস্ময় প্রকাশ করেছে তার পরিবার। জানা যায়, আরিফা খাতুন এবং তার স্বামী ২২ জুন নমুনা পরীক্ষার সিদ্বান্ত গ্রহণ করেন। সিদ্বান্ত অনুয়ায়ী স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই পরিক্ষার নমুনা দেন ফেঞ্চুগঞ্জ হাসপাতালে। এর দু’দিন পরই ২৪ জুন স্বামীকে নিয়ে ফিরে যান যুক্তরাজ্যে। পরবর্তীতে ২৬জুন রিপোর্টে জানানো হয় আরিফা খাতুন করোনা পজিটিভ। এ ব্যাপারে আফিয়া খাতুনের ভাই আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বোনের করোনা পজেটিভ শুনে আমি হতভম্ব! আফিয়া খাতুনের মধ্যে করোনার বিন্দুমাত্র উপসর্গ ছিল না। রিপোর্টের উপর সন্দেহ প্রকাশ করে তিনি বলেন,দেশে এবং লন্ডনে নানা পরিক্ষা করে তাদের এয়ারপোর্ট পাস করেছে। অন্যদিকে লন্ডন থেকে করোনা পজেটিভ খবর শুনে হতভম্ব আফিয়া খাতুন।

    আর এদিকে, মাত্র একদিনের ব্যবধানে করোনা পজিটিভ থেকে নেগেটিভ হওয়া মেডিকেল অফিসার প্রিয়ংকা পাল চৌধুরীর বিষয়ে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (২৩ জুন) ঢাকা ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ল্যাবরেটরি এন্ড রিসোর্স সেন্টারের পিসিআর ল্যাব থেকে পাঠানো প্রথম রিপোর্টে তিনি করোনায় আক্রান্ত বলে জানানো হয়েছিল। পরে বৃহস্পতিবার(২৫ জুন) পুনরায় সিলেট মেডিকেল কলেজে এন্ড হাসপাতালের পিসি আর ল্যাবে পরীক্ষার জন্য নমুনা দেওয়া হয়। মাত্র ০২ দিনের ব্যবধানে ( ২৬ জুন) শুক্রবার রাতে সিলেট মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব থেকে আসা ২য় নমুনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

    তবে, কখনো লকডাউন, কখনো রেড জোন কিংবা করোনার রিপোর্ট প্রদানে বিলম্ব এবং চিকিৎসাসেবা নিয়েও সিলেটজুড়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সিলেটের সচেতন নাগরিকবাসী জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে স্মারকলিপিসহ ইতিমধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সবার প্রত্যাশা সরকারসহ সকল পর্যায়ের সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় করোনা নামক মহামারী থেকে সিলেটসহ পুরো দেশকে রক্ষায় সবাই এগিয়ে আসবেন।

    sylhetbbc24/28th june/mkm

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ