1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪৬ অপরাহ্ন

শ্রীমঙ্গলে বিষাক্ত পটকা মাছ খেয়ে বউ-শাশুড়ির মৃত্যু

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : ডিসেম্বর, ২৪, ২০২০, ১০:৪৯ am

  • ফাইল ছবি

    মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বিষাক্ত পটকা মাছ খেয়ে একই পরিবারের দুজনের মৃত্যু হয়েছে। সম্পর্কে তারা বউ ও শাশুড়ি হন। বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) রাতে উপজেলার উত্তর ভাড়াউড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল থেকে শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

    নিহতরা হলেন, সদর ইউনিয়নের উত্তর ভাড়াউড়া গ্রামের জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী সাহিদা বেগম (৪০) ও তার পুত্রবধূ নুরুন্নাহার (২৯)। নিহত নুরুন্নাহারের শিশুপুত্র নাঈম (৯) গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

    এ ঘটনায় রাতেই শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ সার্কেল) মো. আশরাফুজ্জামান, শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস ছালেক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

    মাছ বিক্রি করা জেলের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিবেশী রুমান জানান, গতকাল সকাল সাড়ে নয়টায় এক জেলে এই পটকা মাছ নিয়ে আসে, কেউ মাছ না রাখায় অনেক বার ঘুরাঘুরি করে আবার এই বাড়িতে এসে মাছ বিক্রি করে। এই জেলে তিন/চারদিন পরপর এসে এই এলাকায় মাছ বিক্রি করে যায়।

    শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, গতকাল রাতে আমরা খবর পেয়েছি উত্তরভাড়াউড়া গ্রামে দুজন মানুষ ফুডপয়জনিং এ মারা গেছেন। এবং একজন শিশু আমাদের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। শিশুটি শঙ্কা মুক্ত রয়েছে। আমরা তার চিকিৎসা দিচ্ছি। আমরা জানতে পেরেছি তারা পটকা মাছ খেয়েছে। মরদেহ মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। সেখানে জানা যাবে তারা পটকা মাছের বিষক্রিয়ায় মারা গেছে , নাকি অন্য কোন কারণে মারা গেছে। আমরা জনসাধরাণকে বলব পটকা মাছ একটি বিষাক্ত মাছ। এই মাছ না খাওয়ার জন্য নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

    সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল- কমলগঞ্জ সার্কেল) মো. আশরাফুজ্জামান বলেন, আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছি, ঘটনা রহস্য উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।

    সিলেটবিবিসি/রাকিব/ডেস্ক/ডিসেম্বর ২৪,২০২০

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ