1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

রায়হান হত্যায় এসআই আকবর গ্রেফতার, গুজব না সত্যি?

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : অক্টোবর, ২০, ২০২০, ৯:১৩ am

  • নিজস্ব প্রতিবেদক ::  অবশেষে গ্রেপ্তার হয়েছেন রায়হান হত্যার প্রধান অভিযুক্ত বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়া। তবে খবরটি গুজব না সত্যি সেটি নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না এখন পর্যন্ত। জাতীয় পর্যায়ের মেইনস্ট্রীম কয়েকটি টিভি চ্যানেল ও নিউজ পোর্টালে ব্রেকিং নিউজ আকারে খবরটি প্রকাশ করা হলেও নির্ভরযোগ্য কোন সুত্রের নির্দিষ্ট তথ্য দেওয়া হয়নি এখন পর্যন্ত।

    ঘটনার পর থেকে আকবর পলাতক থাকলেও মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র। তবে কোথায় থেকে এবং কি ভাবে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি।

    এদিকে, সিলেটেও বেশ কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টালসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসআই আকবরের গ্রেফতারের বিষয়টি চাউর হয়ে যায় মঙ্গলবার বিকেলের দিকে। তবে, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জানিয়েছেন এসআই আকবর গ্রেফতার হয়েছেন কি না তিনি এখনো নিশ্চিত নন। আকবর গ্রেফতার হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে তিনিই প্রথমে জানতেন। তিনি জানান, আকবরকে খুব শীগ্রই গ্রেফতার করতে সব ধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

    টিভি চ্যানেলের ব্রেকিং নিউজের উপর ভিত্তি করে সিলেটের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে রায়হানের এক আত্মীয়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনিও জানান বিষয়টি ভূয়া। এখন পর্যন্ত খুনী আকবর গ্রেফতার হয়নি। আর তাই এখন পর্যন্ত রায়হান হত্যায় গ্রেপ্তার এসআই আকবর,  এটা গুজব না সত্যি সেটি আপাতত বলা যাচ্ছে না?

    সোমবার (১৯ অক্টোবর) রায়হান হত্যার ঘটনার দিন রাতে ফাঁড়িতে দায়িত্বরত ৩ পুলিশ কনস্টেবল শামিম, সাইদুল ও দেলোয়ার ১৬৪ ধারায় আদালতে সাক্ষী দিয়েছেন।সিলেটের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াদুর রহমানের আদালতে তোলা হলে তারা ওই দিনের প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে ঘটনার বর্ণনা দেন এবং আদালত তা রেকর্ড করে।

    উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর ভোরে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হন রায়হান আহমদ (৩৪) নামের এক যুবক। পরে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে তিনি মারা যান। রায়হান সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি নগরীর রিকাবিবাজার স্টেডিয়াম মার্কেটে এক চিকিৎসকের চেম্বারে কাজ করতেন।

    এই ঘটনায় ১২ অক্টোবর রাতে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হেফাজতে মৃত্যু আইনে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী।

    এরপর পুলিশের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হলে রায়হানকে ফাঁড়িতে এনে নির্যাতনের প্রাথমিক প্রমাণ পায় কমিটি। এই তদন্ত কমিটির সুপারিশে বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূইয়া, কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, তৌহিদ মিয়া ও টিটুচন্দ্র দাসকে সাময়িক বরখাস্ত এবং এএসআই আশেক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী ও কনস্টেবল সজিব হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়।

    সিলেটবিবিসি/রাকিব/ডেস্ক/অক্টোবর ২০,২০২০

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ