1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০২:০০ পূর্বাহ্ন

পৌর নির্বাচন: জগন্নাথপুর প্রথমবারের ভোট হবে ইভিএমে

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : ডিসেম্বর, ৩, ২০২০, ৬:৩৬ am

  • সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌরসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। এ পৌরসভায় আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম)-এর মাধ্যমে। বুধবার (২ ডিসেম্বর) নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন।

    ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২০ ডিসেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই ২২ ডিসেম্বর এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ ডিসেম্বর।

    এদিকে প্রথমবারের মতো এই পৌরসভায় ইভিএমের মাধ্যমে ভোট হবে। ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে সকাল আটটা থেকে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর থেকে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকা পেতে তৎপরতা চালাচ্ছেন অনেকেই। তবে ঘরে বসে নেই বিএনপিও।

    অন্যদিকে এই উপজেলা প্রথমবারের মতো ইভিএমে হবে। সে কারণেই ভোটাররা এই যন্ত্রটির সঙ্গে ততটা পরিচিত নয়। তবে সুনামগঞ্জে জেলা নির্বাচন অফিস জানিয়েছে- এই পৌরসভায় বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে ভোটারদের ইভিএমে ভোট দিতে আগ্রহী করে তোলার চেষ্টা করা হবে।

    এসব তথ্য নিশ্চিত করে সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বলেন, আগামী ২০ ডিসেম্বর মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ দিন। যাচাই বাছাই ২২ ডিসেম্বর প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ ১৬ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল নির্বাচনী কাজ সম্পন্ন করা হবে।

    প্রসঙ্গত- প্রবাসী অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত এ পৌরসভায় বিগত দুই মাস আগে নির্বাচন হলেও আইন অনুযায়ী পৌর পরিষদের মেয়াদ কাল শেষ হয়ে যাওয়ায় আবার নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

    ইভিএমে যেভাবে ভোট দেবেন নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা জানান- ভোট কেন্দ্রে একজন ভোটার আসার পর কেন্দ্রের নির্ধারিত কক্ষে প্রিজাইডিং অফিসার প্রথমে ভোটারের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড, আঙুলের ছাপ ও ভোটার নম্বর যাচাই করে ভোটার হিসেবে নিশ্চিত করবেন। এ সময় ভোটারের ছবি ও তথ্য একটি মনিটরে প্রদর্শিত হবে। যাতে সকল প্রার্থীর এজেন্টরা ভোটারের পরিচয় দেখতে পারেন।

    ভোটারকে শনাক্তকরণের পর গোপন কক্ষে থাকা ইভিএম মেশিনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে সচল হবে। যতগুলো পদের জন্য ভোট প্রদান করতে হবে কক্ষের ভেতরে ঠিক ততগুলো ডিজিটাল ব্যালট ইউনিট রাখা থাকবে। এই ইউনিটে প্রার্থীদের প্রতীক বাম পাশে এবং নাম ডান পাশে দেখা যাবে।

    ইভিএম পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে তার প্রতীকের বাম পাশের সাদা বাটনে চাপ দিতে হবে। এ সময় প্রতীকের পাশে বাতি জ্বলে উঠবে। ভোট নিশ্চিত করতে ডান পাশের সবুজ বাটনে চাপ দিতে হবে। একই প্রক্রিয়ায় অন্যান্য পদের জন্যও ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

    কোনও কারণে যদি ভোটার ভুল প্রতীক শনাক্ত করেন তাহলে সবুজ বাটন চাপ দেওয়ার আগে তা সংশোধন করতে পারবেন। ভুল সংশোধনের আগে ভোটারকে ডান পাশের লাল বাটনে চাপ দিতে হবে। এতে ভুল করে দেওয়া পূর্বের ভোটটি বাতিল হয়ে যাবে। ফলে নতুন করে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে। সঠিকভাবে পুনরায় প্রতীকের পাশের বাটনে চাপ দিয়ে সবুজ বাটনে চাপ দিলে ভোট প্রক্রিয়া শেষ হবে।

    পরীক্ষামূলকভাবে ইভিএমে ভোট দেওয়ার নিয়ম বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে সবুজ বাটন চাপ দেওয়ার পর ভোট দেওয়া প্রতীক ছাড়া বাকি সকল প্রতীক অদৃশ্য হয়ে যাবে। এতে ভোটার নিশ্চিত হবেন যে, ওই প্রতীকে তার ভোট দেওয়ার প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তবে অবশ্যই কেন্দ্রে আসার আগে ভোটারকে তার ভোটটি কোন বুথে পড়েছে সেটি জেনে আসা ভালো। তাহলে আরও সহজেই ভোট দেওয়া সম্ভব হবে।

    সিলেটবিবিসি/রাকিব/ডেস্ক/ডিসেম্বর ০৩,২০২০

     

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ