1. sylhetbbc24@gmail.com : admin : Web Developer
  2. marufmunna29@gmail.com : admin1 : maruf khan munna
  3. faisalyounus1990@gmail.com : Abu Faisal Mohammad Younus : Abu Faisal Mohammad Younus
শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন

জগন্নাথপুরে ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে বাদীর পরিবার

  • সিলেট বিবিসি ২৪ ডট কম : অক্টোবর, ২৩, ২০২০, ২:৩৪ pm

  • সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে তিন সন্তানের জননীকে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে বিপাকে পড়েছে ভুক্তভোগীর পরিবার। মামলার বাদী ও তার মাকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে অভিযুক্ত আব্দুল খালিছ। এ ঘটনায় নিরাপত্তা চেয়ে ওই নারীর মা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য শরিফুল বেগম ও জগন্নাথপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে একটি লিখিত আবেদন করেছেন।

    পুলিশ, এলাকাবাসী, ধর্ষণের শিকার নারীর পরিবার ও মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার নারীর স্বামী একজন সহজ-সরল কর্মক্ষমহীন লোক হওয়ায় বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে ওই নারী বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেন। এ সুবাদে গ্রামের প্রভাবশালী ব্যক্তি আবদুল খালিছ ওই নারীকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। এতে রাজি না হওয়ায় গত ৩ এপ্রিল রাতে নারীকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন খালিছ। বিষয়টি লোকলজ্জার ভয়ে কাউকে না জানালে আবদুল খালিছ আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। তিনি ওই ঘর থেকে কৌশলে তাদের ভোটার আইডি কার্ড, বিয়ের কাবিননামা ও জমির কাগজপত্রসহ নগদ ১০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে যান। ব্ল্যাকমেইল করে ইচ্ছের বিরুদ্ধে একাধিকবার ওই নারীকে ধর্ষণ করেন তিনি। গত ৯ অক্টোবর রাতে ঘরে ঢুকে আবদুল খালিছ ওই নারীর স্বামী-সন্তানদের একটি ঘরে আটকে রেখে তাকে আবারও জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন।

    ভুকভোগী নারীর মা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যা শরিফুল বেগম বলেন, ‘৫ সন্তানের জনক আব্দুল খালিছ একজন লম্পট ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তার ভয়ে কেউ কথা বলে না। আমার মেয়েকে ভয়ভীতি দেখিয়ে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে।’

    এ ঘটনায় জগন্নাথপুর থানায় এজাহার দাখিল করলে পুলিশ তদন্তে নামে। পরে ঘটনাস্থল নবীগঞ্জ হওয়ায় জগন্নাথপুর থানার পুলিশ নবীগঞ্জে মামলা দায়েরের পরামর্শ দিলে তরুণী বাদী হয়ে হবিগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকে ধর্ষক আব্দুল খালিছ বেপরোয়া হয়ে ওঠেন এবং ওই নারী ও তার মা শরিফুল বেগমকে প্রাণনাশের হুমকি ও বাড়িঘর জোরপূর্বক দখল করে নেওয়ার হুমকি দেন।

    জগন্নাথপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, অভিযোগের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

    সিলেটবিবিসি/রাকিব/ডেস্ক/অক্টোবর ২৩,২০২০

    facebook comments












    © All rights reserved © 2020 sylhetbbc24.com
    পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ